১১:৩২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নবীনগরে উদ্বোধনের অপেক্ষায় ৩১ শয্যার উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে ৩১ শয্যার ৩তলা বিশিষ্ট নবনির্মিত সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধনের অপেক্ষায় সরকারি স্বাস্থ্য সেবা নিতে আসা উপজেলার লাখো সাধারন মানুষ।

তথ্য সূত্রে জানা যায়,৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ১৯ শয্যা বিশিষ্ট ভবনটি ২০১৪ সালে উদ্বোধন হলেও ৩১ শয্যা বিশিষ্ট ভবনটি ছিল জরাজীর্ণ। এতে করে স্বাস্থ্য সেবা নিতে আসা রোগীদের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছিল উক্ত প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত ডাক্তার ও নার্সেরা।ইতিপূর্বে বিগত বছর জরাজীর্ণ ভবনের জানালা দিয়ে জরুরি স্বাস্থ্য সেবা নিতে আসা পৌর এলাকার আলীয়াবাদ গ্রামের জনৈক মহিলা নিচে পরে যাওয়ার মত ঘটনা ঘটলে সমালোচনা মুখে পড়ে হাসপাতাল কতৃপক্ষ। এছাড়া পুরাতন জরাজীর্ণ ভবনে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি ও ভবন ঝুঁকিতে থাকায় বেশির ভাগ রোগীদের দূর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। বর্তমান সরকারের ভিশন জনগনের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে উপজেলা পর্যায়ে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি সম্পূর্ণ আধুনিক স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মাণ।এভিশন বাস্তবায়ন করতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া (০৫) নবীনগরের বর্তমান সংসদ সদস্য এবাদুল করিম বুলবুল ২০১৯ সালে ৩১ শয্যার ৩তলা বিশিষ্ট ভবনটি নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে।পরে তিনি ঐ সালের শেষের দিকে সরকারি অর্থায়নে প্রায় ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে ভবন নির্মাণ কাজ শুরুর উদ্বোধন করলে ২০২৩ সালের মাঝামাঝি সময়ে এসে তা শেষ হয়।উক্ত ভবনটির নিমার্ণ কাজ শেষ হওয়ায় ৩ জুন শনিবার উদ্বোধনের সকল প্রস্তুতি সম্পূর্ণ করেছে হাসপাতাল কতৃপক্ষ।এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডাক্তার মোঃ একরাম উল্লাহ সিভিল সার্জন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন নবীনগরের সাংসদ এবাদুল করিম বুলবুল। নবনির্মিত ৩১ শয্যা ও পূর্বনির্মিত ১৯ শয্যা সহ ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সো সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে ৩১ জন ডাক্তার ও ২৭ জন নার্স প্রতিনিয়ত কাজ করবে।এতে স্বাস্থ্য সেবায় নতুন করে যোগ হচ্ছে মহিলাদের মাতৃত্বকালীন সিজার, চক্ষু সেবা দিতে কমিনিউটি ভিশন সেন্টার, যক্ষা রোগের কফ পরিক্ষা সেন্টার, মায়ের গর্ভে ভ্রূণের ঠিকমতো বেড়ে ওঠার ব্যাপারটা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করার জন্য আল্ট্রাসনোগ্রাফি ,হৃদরোগের জন্য কার্ডিওলজি বিভাগ,শিশু চিকিৎসার জন্য শিশু বিভাগ,সাধারন রোগীদের জন্য মেডিসিন বিভাগ।

এবিষয়ে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার হাবিবুর রহমান জানান,পূর্বের ভবনটি জরাজীর্ণ থাকায় সেবা নিতে আসা রোগদের দূর্ভোগ পোহাতে হয়েছে, আমাদেরও মনে দূবলতা নিয়ে স্বাস্থ্য সেবা দিতে হয়েছে। ১৯ শয্যা বিশিষ্ট ভবনটি ২০১৪ সালে উদ্বোধন হয়েছে আর এইবার ৩১ শয্যা বিশিষ্ট ভবনটি উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট নবীনগর উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স অত্যাধুনিক সেবা দিয়ে যাবে উপজেলা বাসীকে।

Facebook Comments Box
ট্যাগ :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

সম্পাদনাকারীর তথ্য

Dipu

❅ জনপ্রিয়

নবীনগরে উদ্বোধনের অপেক্ষায় ৩১ শয্যার উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবন।

আপডেট : ১০:৩১:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩১ মে ২০২৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে ৩১ শয্যার ৩তলা বিশিষ্ট নবনির্মিত সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধনের অপেক্ষায় সরকারি স্বাস্থ্য সেবা নিতে আসা উপজেলার লাখো সাধারন মানুষ।

তথ্য সূত্রে জানা যায়,৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ১৯ শয্যা বিশিষ্ট ভবনটি ২০১৪ সালে উদ্বোধন হলেও ৩১ শয্যা বিশিষ্ট ভবনটি ছিল জরাজীর্ণ। এতে করে স্বাস্থ্য সেবা নিতে আসা রোগীদের সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছিল উক্ত প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত ডাক্তার ও নার্সেরা।ইতিপূর্বে বিগত বছর জরাজীর্ণ ভবনের জানালা দিয়ে জরুরি স্বাস্থ্য সেবা নিতে আসা পৌর এলাকার আলীয়াবাদ গ্রামের জনৈক মহিলা নিচে পরে যাওয়ার মত ঘটনা ঘটলে সমালোচনা মুখে পড়ে হাসপাতাল কতৃপক্ষ। এছাড়া পুরাতন জরাজীর্ণ ভবনে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি ও ভবন ঝুঁকিতে থাকায় বেশির ভাগ রোগীদের দূর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। বর্তমান সরকারের ভিশন জনগনের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে উপজেলা পর্যায়ে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি সম্পূর্ণ আধুনিক স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মাণ।এভিশন বাস্তবায়ন করতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া (০৫) নবীনগরের বর্তমান সংসদ সদস্য এবাদুল করিম বুলবুল ২০১৯ সালে ৩১ শয্যার ৩তলা বিশিষ্ট ভবনটি নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে।পরে তিনি ঐ সালের শেষের দিকে সরকারি অর্থায়নে প্রায় ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে ভবন নির্মাণ কাজ শুরুর উদ্বোধন করলে ২০২৩ সালের মাঝামাঝি সময়ে এসে তা শেষ হয়।উক্ত ভবনটির নিমার্ণ কাজ শেষ হওয়ায় ৩ জুন শনিবার উদ্বোধনের সকল প্রস্তুতি সম্পূর্ণ করেছে হাসপাতাল কতৃপক্ষ।এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডাক্তার মোঃ একরাম উল্লাহ সিভিল সার্জন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন নবীনগরের সাংসদ এবাদুল করিম বুলবুল। নবনির্মিত ৩১ শয্যা ও পূর্বনির্মিত ১৯ শয্যা সহ ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সো সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে ৩১ জন ডাক্তার ও ২৭ জন নার্স প্রতিনিয়ত কাজ করবে।এতে স্বাস্থ্য সেবায় নতুন করে যোগ হচ্ছে মহিলাদের মাতৃত্বকালীন সিজার, চক্ষু সেবা দিতে কমিনিউটি ভিশন সেন্টার, যক্ষা রোগের কফ পরিক্ষা সেন্টার, মায়ের গর্ভে ভ্রূণের ঠিকমতো বেড়ে ওঠার ব্যাপারটা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করার জন্য আল্ট্রাসনোগ্রাফি ,হৃদরোগের জন্য কার্ডিওলজি বিভাগ,শিশু চিকিৎসার জন্য শিশু বিভাগ,সাধারন রোগীদের জন্য মেডিসিন বিভাগ।

এবিষয়ে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার হাবিবুর রহমান জানান,পূর্বের ভবনটি জরাজীর্ণ থাকায় সেবা নিতে আসা রোগদের দূর্ভোগ পোহাতে হয়েছে, আমাদেরও মনে দূবলতা নিয়ে স্বাস্থ্য সেবা দিতে হয়েছে। ১৯ শয্যা বিশিষ্ট ভবনটি ২০১৪ সালে উদ্বোধন হয়েছে আর এইবার ৩১ শয্যা বিশিষ্ট ভবনটি উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট নবীনগর উপজেলা সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স অত্যাধুনিক সেবা দিয়ে যাবে উপজেলা বাসীকে।

Facebook Comments Box