১২:০১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নবীনগর শিবপুর বাজারে জমে উঠেছে গরু-ছাগল ও মহিষের হাট

আসন্ন ঈদ-উল- আযহা উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলার শিবপুর বাজারে জমে উঠেছে বিশাল গরু-ছাগল ও মহিষের হাট। এ হাটে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামসহ পার্শবর্তী বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে ছোট বড় বিভিন্ন সাইজের গরু, মহিষ ও ছাগল আসে ।এছাড়া দেশের বিভিন্ন জায়গাসহ রাজধানী ঢাকা থেকে অনেক ক্রেতা আসে এ হাটে।সপ্তাহে শুক্রবার গরু-ছাগল ও মহিষের হাট বসে।

হাট কর্তৃপক্ষ ক্রেতা বিক্রেতাদের সাথে ভ্রাতৃত্ত্বমুলক ও সুলভ আচরনের জন্য দুর দুরান্ত থেকে বিক্রেতারা আসে এ হাটে। হাট কর্তৃপক্ষ ক্রেতা বিক্রেতাদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তাসহ দুরের লোকদের জন্য থাকা খাওয়ার সুব্যবস্থা করে থাকেন।

গরু বিক্রেতা আরমান বলেন, আমি আজকের বাজারে ৭ টি গরু নিয়ে আসছি বিক্রয় করার জন্য।আমার এখানে সর্বোচ্চ গরুর মূল্য ৫ লাখ টাকা। আজকের বাজারে ক্রেতার সংখ্যা কম হওয়ায় ৭ টি গরুর মধ্যে মাত্র একটি গরু বিক্রয় করেছি ৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকায়।

গরু ক্রেতা মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন,আমি কোরবানি গরু ক্রয় করার জন্য বাজারে এসেছি।আজকের বাজারে ১ লাখ টাকার ভিতরে যে গরু বিক্রয় হচ্ছে সেগুলোর দাম চড়া। দেড় লাখ থেকে দুই লাখ টাকার উপর যে গরু বিক্রয় হচ্ছে সেগুলোর দাম স্বাভাবিক রয়েছে।

বাজার কমিটির সদস্যরা বলেন, আমরা সকল শ্রেণির ক্রেতা বিক্রতাদের সকল ধরণের নিরাপত্তা নিশ্চিতসহ দুরের ক্রেতা বিক্রেতাদের জন্য থাকা খাওয়ার সুব্যবস্থা করে থাকি।আগামীকাল শনিবার থেকে বুধবার পর্যন্ত গরু-ছাগল ও মহিষের হাট বসবে।

 

Facebook Comments Box
ট্যাগ :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

সম্পাদনাকারীর তথ্য

Dipu

❅ জনপ্রিয়

নবীনগর শিবপুর বাজারে জমে উঠেছে গরু-ছাগল ও মহিষের হাট

আপডেট : ০৯:১৬:২৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ জুন ২০২৩

আসন্ন ঈদ-উল- আযহা উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলার শিবপুর বাজারে জমে উঠেছে বিশাল গরু-ছাগল ও মহিষের হাট। এ হাটে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামসহ পার্শবর্তী বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে ছোট বড় বিভিন্ন সাইজের গরু, মহিষ ও ছাগল আসে ।এছাড়া দেশের বিভিন্ন জায়গাসহ রাজধানী ঢাকা থেকে অনেক ক্রেতা আসে এ হাটে।সপ্তাহে শুক্রবার গরু-ছাগল ও মহিষের হাট বসে।

হাট কর্তৃপক্ষ ক্রেতা বিক্রেতাদের সাথে ভ্রাতৃত্ত্বমুলক ও সুলভ আচরনের জন্য দুর দুরান্ত থেকে বিক্রেতারা আসে এ হাটে। হাট কর্তৃপক্ষ ক্রেতা বিক্রেতাদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তাসহ দুরের লোকদের জন্য থাকা খাওয়ার সুব্যবস্থা করে থাকেন।

গরু বিক্রেতা আরমান বলেন, আমি আজকের বাজারে ৭ টি গরু নিয়ে আসছি বিক্রয় করার জন্য।আমার এখানে সর্বোচ্চ গরুর মূল্য ৫ লাখ টাকা। আজকের বাজারে ক্রেতার সংখ্যা কম হওয়ায় ৭ টি গরুর মধ্যে মাত্র একটি গরু বিক্রয় করেছি ৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকায়।

গরু ক্রেতা মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন,আমি কোরবানি গরু ক্রয় করার জন্য বাজারে এসেছি।আজকের বাজারে ১ লাখ টাকার ভিতরে যে গরু বিক্রয় হচ্ছে সেগুলোর দাম চড়া। দেড় লাখ থেকে দুই লাখ টাকার উপর যে গরু বিক্রয় হচ্ছে সেগুলোর দাম স্বাভাবিক রয়েছে।

বাজার কমিটির সদস্যরা বলেন, আমরা সকল শ্রেণির ক্রেতা বিক্রতাদের সকল ধরণের নিরাপত্তা নিশ্চিতসহ দুরের ক্রেতা বিক্রেতাদের জন্য থাকা খাওয়ার সুব্যবস্থা করে থাকি।আগামীকাল শনিবার থেকে বুধবার পর্যন্ত গরু-ছাগল ও মহিষের হাট বসবে।

 

Facebook Comments Box